কিভাবে আপনার অনলাইন একাউন্টের সুরক্ষা নিশ্চিত করবেন


ইন্টারনেটের পরিসর বৃদ্ধির সাথে সাথে বৃদ্ধি পাচ্ছে প্রতিটি ইউজারের অনলাইন একাউন্টের সংখ্যা। সেই সাথে ইন্টারনেটে বৃদ্ধি পাচ্ছে হ্যাকারদের সংখ্যা। তাই আজকের এই আর্টিকেলে একাউন্ট হ্যাক হওয়ার কারণ এবং একাউন্ট হ্যাকারের হাত থেকে রক্ষ্যা করার টপিক নিয়ে আলোচনা করব। 

একাউন্ট কিভাবে সুরক্ষিত রাখবেন সেটা জানার আগে জানা যাক কেনো আপনার একাউন্ট হ্যাক হতে পারে।

হ্যাকার কেনো আপনার একাউন্ট হ্যাক করবে?

দেখা যাবে অনেকে কমেন্ট করে বলবে হ্যাকার কেনো আমার একাউন্ট টার্গেট করবে, আমি কি কোনো সেলিব্রেটেড মানুষ নাকি?। তাহলে তাদের উদ্দেশ্যে বলি গোপনীয়তা সবারই আছে। আর হ্যাকাররা কারো একাউন্টকে টার্গেট করে কাজ করে না তারা মেনুয়ালী অ্যাটাক দিতে থাকে। যার অ্যাকাউন্টই হ্যাক করুকনা  কেনো তার একাউন্ট থেকে সব ডাটা চুরি করে ঐ ডাটা থেকে তার দুর্বলতা খুজে বের করে। এরপর সেই দুর্বলতাকে অস্ত্র হিসেবে ইউজ করে তাকে ব্লাকমেইল করে তার কাছ থেকে কিছু  মোটা অঙ্কের টাকা বের করার ট্রাই করে। 

কিভাবে আপনার একাউন্ট হ্যাক হওয়া থেকে রক্ষা করবেন?




এতক্ষণে নিশ্চয় বুঝে গেছেন হ্যাকার কেনো আপনার একাউন্ট হ্যাক করবে। 
  • আপনার একাউন্ট হ্যাক হওয়ার হাত থেকে বাঁচাতে হলে অবশ্যই আপনাকে শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ইউজ করতে হবে। হ্যাকারের হাত থেকে বাঁচার জন্য শক্তিশালী পাসওয়ার্ডের বিকল্প নেই। 
  • আজকাল  তো  দেখা যায় একেক জন ইউজারের 25-30 টি করে অনলাইন একাউন্ট। আমি অন্য কারুর কথা বলবো না যেখানে আমারই 22 টি অনলাইন একাউন্ট। বর্তমানে এটা অনেক স্বাভাবিক ব্যাপার হয়ে দাড়িয়েছে। এতগুলো একাউন্টের পাসওয়ার্ড মনে রাখার ভয়ে আমরা অনেকেই সিম্পিল মানের পাসওয়ার্ড ইউজ করি। যারা সিম্পিল মানের পাসওয়ার্ড ইউজ করেন তাদের উদ্দেশ্যে বলি সিম্পিল মানের পাসওয়ার্ড ইউজ মানের বাদ দিন।
  • যেহেতু হ্যাকাররা মেনুয়ালী অ্যাটাক দেয় তাই আনকমন টাইপের ইউজারনেম ইউজ করলে একাউন্ট হ্যাক হওয়ার সম্ভাবনা অনেক কমে যায়। তাই আনকমন টাইপের ইউজারনেম ইউজ করুণ।
  • অবশ্যই প্রতিটি একাউন্টে ভিন্ন ভিন্ন পাসওয়ার্ড ইউজ করুণ। আর তা না হলে হ্যাকার আপনার একটি একাউন্ট অ্যাক্সেস করেই সবগুলো একাউন্ট হাতে নিয়ে নেবে।
  • সবার উচিত একাউন্টের ইউজারনেম সবার সাথে শেয়ার না করা। কেননা যখন হ্যাকার আপনার ইউজারনেম পাসওয়ার্ড  কোনোটাই জানবে না তখন তার কাজ অনেক কঠিন হয়ে দাঁড়াবে। আর হ্যাকার মহাশয় যদি আগে থেকেই আপনার ইউজারনেম জেনে থাকে তাহলে তো তার অর্ধেক কাজ আগে থেকেই সম্পন্ন হয়ে আছে আর কি।
  • একাউন্টের সব লগিন ইনফর্মেশন যথাসম্ভব সেফ রাখুন।
কিভাবে একটি কমপ্লেক্স পাসওয়ার্ড নির্বাচন করবেন এবং সেটা মনে রাখবেন?




প্রযুক্তির এই চরম সময়ে আপনার সবগুলো একাউন্টের পাসওয়ার্ড মেমরাইজ করার জন্য একটি পাসওয়ার্ড ম্যানেজারই যথেষ্ঠ। ব্রাউজারে জাস্ট পাসওয়ার্ড ম্যানেজার প্লাগইন ইনস্টল করে একাউন্ট করলেই হয়ে গেল। এমনকি আপনাকে কষ্ট করে শক্তিশালী পাসওয়ার্ড তৈরী করতে হবে না। পাসওয়ার্ড ম্যানেজারের জেনারেটর ফিচার আপনাকে অনেক শক্তিশালী  পাসওয়ার্ড জেনারেট করে দেবে এবং সেটা নিজেই সেভ করে রাখবে। 

তবে যতটাই সুবিধা ততটাই ঝুঁকি। কেননা এক্ষেত্রে হ্যাকার আপনার পাসওয়ার্ড ম্যানেজার অ্যাক্সেস করতে পারলেই বাকি সবগুলো একাউন্ট মুহুর্তের মধ্যেই হাতের মুঠোয় নিয়ে নেবে। তাই সবচেয়ে জরুরী বিষয়টি হলো আপনার পাসওয়ার্ড ম্যানেজারে যথা সম্ভব শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ইউজ করা। সহজেই মনে রাখার যোগ্য শক্তিশালী পাসওয়ার্ড তৈরী করার জন্য নিচের নিয়মগুলো ফলো করুণ। 


1. ক্যাপিটাল লেটার স্মল লেটার এবং নাম্বার মিশ্রিত করে ইউজ করুণ।
2. পাসওয়ার্ডের মধ্যে কিছু স্পেশাল ক্যারেক্টার (" ' - _ + = & ; : * # ¥ § $ € £ ইত্যাদি) ইউজ করুণ।
3. অনেকেই দেখা যায় মিনিমাম ছয় ক্যারেক্টার তাই ছয় ক্যারেক্টারের পাসওয়ার্ডই ইউজ করে। এরকম না করে যথা সম্ভব লম্বা পাসওয়ার্ড ইউজ করুণ। 
4. তবে পাসওয়ার্ড লম্বা হলে মনে রাখা কঠিন হয়ে যায় তাই পাসওয়ার্ডের ক্যারেক্টার গুলোর মধ্যে এমনভাবে মিল রাখুন যাতে সহজেই মনে রাখা যায়।
5. আমরা স্বভাবতই একটি এলোমেলো ওয়ার্ডের থেকে একটি বড় বাক্য সহজেই মনে রাখতে পারি, তাই লম্বা পাসওয়ার্ডের ক্ষেত্রে আপনার মনে থাকবে এমন একটি পূর্ণ বাক্য ইউজ করতে পারেন।

আজকের মতো এখানেই সমাপ্তি করছি। এ পর্যন্ত এটাই আমার লেখা সবচেয়ে লম্বা আর্টিকেল ছিলো। শেষ পর্যন্ত পড়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ।

0/মন্তব্য করুন/টি মন্তব্য

নবীনতর পূর্বতন