6G নেটওয়ার্ক ডেভলপ করার কাজ শুরু করে দিয়েছে জাপান!

আপনি কি এখনো 4G তেই পড়ে আছেন? আপনি যদি বাংলাদেশে অবস্থান করেন তাহলে অবশ্যই আপনার উত্তর 'হ্যাঁ'। কেননা আপনার ডিভাইজ 5G সাপোর্টেড হলেও আপনার নেটওয়ার্ক অপারেটর এখনও 5G সাপোর্ট করে না। কী আর করার বলেন? এটাও তো দেখতে হবে যে আমরা কোন দেশে বসবাস করি! যতদিন সব নেটওয়ার্ক অপারেটর গুলো তাদের 5G সিম লঞ্চ করছে না ততদিন 5G নেটওয়ার্ক অসম্পূর্ণই থেকে যাচ্ছে। তবে আশা করা যায় ২০২০ এর মধ্যেই পুরো পৃথিবী 5G নেটওয়ার্কে ছেয়ে যাবে। যদিও বাংলাদেশের প্রেক্ষাপট অনুযায়ী 5G এখনও অনেক দূরের ব্যাপার। এসব কথা বাদ দিয়ে এবার তাহলে কাজের কথায় আসা যাক।

যেখানে এখনও পুরো পৃথিবী 5G নেটওয়ার্কে ছেয়ে যায় নাই এরই মধ্যে জাপান 6G এর পরিকল্পনা করে ফেলেছে! তারা ইতিমধ্যেই 6G ডেভলপের কাজ শুরু করে দিয়েছে। তাদের ঘোষনা অনুযায়ী তারা একটি এমন শক্তিশালী নেটওয়ার্ক ডেভলপ করতে চলেছে যেটা 5G এর তুলনায় ১০ গুন দ্রুত গতির হবে। জাপানের পাশাপাশি দক্ষিন কোরিয়া, ফিনল্যান্ড এবং চিনও এটা নিয়ে তাদের গবেষনা শুরু করে দিয়েছে। বর্তমানে জাপানের  যোগাযোগ মন্ত্রনালয় এই মাসেই 6G নিয়ে গবেষণার জন্য সরকারিভাবে একটি দল গঠন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। জানা গেছে জাপান 6G ডেভলপের জন্য ২.০৩ বিলিয়ন ইউএস ডলার ইনভেস্ট করবে।

6G নেটওয়ার্ক বর্তমান 5G নেটওয়ার্ক এর তুলনায় ১০ গুন স্পিড দেবে বলে আশা করা যাচ্ছে। বর্তমানে যেসব হাই ফ্রিকোয়েন্সি তরঙ্গ ব্যাবহারের অনুপযোগী সেগুলোয় 6G তৈরীতে ব্যবহার করা হবে। সংস্থাগুলি আগামী দশকের শুরুর দিকে 6G নেটওয়ার্ক প্রবর্তনের উদ্দেশ্যে তাদের কাজ শুরু করে দিয়েছে। ২০১৯ এর নভেম্বরের দিকে চীন সরকার জানিয়েছিল যে 6G নিয়ে গবেষণার জন্য দুটি গবেষনা প্রতিষ্ঠান স্থাপন করা হচ্ছে। গত বছর থেকেই ফিনল্যান্ডে বেশ কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে সরকারি ভাবে 6G গবেষনা নিয়ে কিছু প্রজেক্ট শুরু করা হয়েছে। এই দিকে এলজি ইলেকট্রনিক্স এবং স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স 6G প্রযুক্তি নিয়ে গবেষনা করার জন্য দক্ষিন কোরিইয়ায় তাদের গবেষনা কেন্দ্র স্থাপন করেছে।

6G প্রযুক্তি নিয়ে আপনার কি মতামত সেটা অবশ্যই কমেন্ট সেকশনে জানিয়ে যাবেন। আর রেগুলার বিভিন্ন টেক নিউজ এবং টেকনোলজি সম্পর্কিত আর্টিকেল পেতে আমাদের সাইট রেগুলার ভিজিট করুন, ধন্যবাদ।

0/মন্তব্য করুন/টি মন্তব্য

নবীনতর পূর্বতন